বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:০২ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

বসন্তের আবাহনে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’
রিপোর্টারের নাম / ১০৯ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক :

স্বাভাবিক পরিস্থিতিতে প্রতিবছর পহেলা ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ও তার পাশের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে মাসব্যাপী মেলার শুরু হয়। করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতি বিবেচনায় গত বছরের মতো এবারের মেলা বিঘ্নের সম্মুখীন। এবার দুই সপ্তাহ পিছিয়ে দেয়া হয়েছে মেলা। সংক্রমণ কিছুটা নিম্নমুখী হওয়ায় শর্তসাপেক্ষে ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে বইমেলা শুরুর দিনক্ষণ ঠিক হয়। আপাতত ২৮শে ফেব্রুয়ারিই মেলা শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। সময় আর বাড়ানো না হলে এটিই হবে সবচেয়ে সংক্ষিপ্ত বইমেলা। তবে কোভিড পরিস্থিতি উন্নতি সাপেক্ষে মেলার সময়কাল বাড়ানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন বইমেলা পরিচালনা কমিটি সংশ্লিষ্টরা।

 

বসন্তের সুস্পষ্ট আবাহন সর্বত্র। সঙ্গে করোনার উত্থান-পতনের ভীতি। এসব সমস্যা, সংশয়, শঙ্কার অবসান ঘটিয়ে কাল মঙ্গলবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) থেকে শুরু হচ্ছে বাঙালির প্রাণের মেলা ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’। বিকাল ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে গণভবন থেকে ভার্চ্যুয়ালি অমর একুশে বইমেলা-২০২২ এর উদ্বোধন ঘোষণা করবেন।

সাড়ে সাত লাখ স্কয়ার ফুট জায়গাজুড়ে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এবারের গ্রন্থমেলায় ৫০০ প্রকাশক প্রতিষ্ঠানকে প্রায় ৮০০টি স্টল বরাদ্দ দিয়েছে বাংলা একাডেমি। নতুন করে স্টল বরাদ্দ দেয়া হয়েছে ২৪টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে। প্যাভিলিয়ন সংখ্যাও গতবারের তুলনায় এবার বেড়েছে। শেষমুহুর্তে মেলায় বরাদ্দকৃত জায়গায় স্টল তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মালিক, টেন্ডার পাওয়া প্রতিষ্ঠান ও সাধারণ শ্রমিকরা।

এবারের বইমেলায় বেশকিছু নতুন পরিবর্তন আনা হয়েছে। বিগত বছরগুলোতে বইমেলা শুরু হতো বেলা তিনটায়। তবে এবার বইমেলা এক ঘণ্টা আগে দুপুর দুইটা থেকে শুরু করা হবে। চলবে রাত ৯টা পর্যন্ত। স্বাস্থ্যবিধির ব্যাপারেও থাকবে বিশেষ কড়াকড়ি। সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে, ক্রেতা-বিক্রেতা সবাইকে মাস্ক পরিধান করতে হবে। বইমেলার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের টিকার সনদ না থাকলে জরিমানা করা হবে এবং মেলায় থাকতে দেয়া হবে না।

অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডের মতো আর কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা যাতে বইমেলা চলাকালে ঘটতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে মেলা প্রাঙ্গণসহ আশপাশের এলাকার প্রতিটি ইঞ্চি জায়গা সিসিটিভির আওতায় আনার পাশাপাশি মেলা প্রাঙ্গণে সাদা পোশাকে পুলিশ সদস্য এবং পর্যাপ্ত সংখ্যক পোশাকধারী সদস্য মোতায়েনের মাধ্যমে মেলা প্রাঙ্গণ নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হবে বলেও জানা গেছে।

মেলার মাঠে নির্মাণাধীন ২৬ নং প্যাভিলিয়নের সামনে বার্তা২৪.কম’র সঙ্গে কথা হয় ‘স্টুডেন্ট ওয়েজ’-এর সত্ত্বাধিকারী মাশফিকউল্লাহ তন্ময়ের। তিনি বলেন, ‘প্রতিমেলায় আমরা কমপক্ষে ৫০টি নতুন বই প্রকাশ করি। এবার নানা কারণে মাত্র ৩০টি নতুন বই আসছে। প্রকাশকদের প্রায়-সবাই কমবেশি নতুন বই মেলায় নিয়ে আসছেন। আসলে শত বিরূপতার মধ্যেও ঐতিহ্যগতভাবে বইমেলা লেখক-পাঠক-প্রকাশকদের একটি প্রাণের মিলনমেলা।’

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ