বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

  • বাংলা বাংলা English English

চিলড্রেন পার্ক স্কুলে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন
রিপোর্টারের নাম / ২৪৭ বার
আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২

কসবা প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়া কসবা উপজেলা গোপীনাথপুর জয়নগর চিলড্রেন পার্ক স্কুলে যথাযথ ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করেছে।

গত সোমবার (২১ ফেব্রুয়ারি) কসবায় গোপীনাথপুর জয়নগর লিয়াকত আলী উচ্চ শহীদ মিনারে ভাষা শহীদের প্রতি ফুলেল শ্রদ্ধা জানায় স্কুলের শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা একুশের চেতনায় দেশ গড়ার শপথ নেয়।

দিনব্যাপী নানান আয়োজনের মধ্যে ছিল বিকেলে চিলড্রেন পার্ক স্কুলের উদ্যোগে `আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের আলোচনা সভা। অনুষ্ঠানে শহীদদের আত্মার প্রতি শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আবুল কাহার (কায়েস মোল্লা) সাংগঠনিক সম্পাদক, গোপীনাথপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এতে প্রধান আলোচক ছিলেন তাসলিমা আক্তার পরিচালক, চিলড্রেন পার্ক স্কুল৷

বক্তারা বেলন – বাহান্ন’র ভাষা আন্দোলনের ভিত্তির উপর আমাদের স্বাধীনতা এসেছে। ভাষা আন্দোলনে বাঙালি রক্ত দিয়ে প্রমাণ করেছে যেকোনো অপশক্তিকে কীভাবে মোকাবেলা করতে হয়। আর এই ভাষা-সংগ্রামের আন্দোলনের মধ্য দিয়েই স্বাধীনতার স্বপ্নকে বাঙালির অস্তিত্বে জাগ্রত করেছিল স্বাধীনতার মহানায়ক ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’।

১৯৯৯ সালে বাংলাকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি আদায় করতে যে দু’জন বাঙালি অবদান রেখেছিলেন (সালাম ও রফিক) এই দু’জনের সঙ্গে মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের দেরাদুনে এক সঙ্গে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলাম। আমি তাদের তখন থেকেই ছিনি। তাদের রক্তে আদর্শে ঝলকানি দেখেছিলাম। পরবর্তী সময়ে তারা বাহান্ন ও একাত্তরের চেতনা বুকে ধারণ করেই বাংলা ভাষাকে জাতিসংঘের স্বীকৃতি আদায়ের জন্য জাতিসংঘে প্রস্তাব তুলেছিল। তাহলে বুঝতে হবে তারা কতখানি দেশপ্রেম ধারণ করলে এমন অবদান রাখতে পারে।

অন্য বক্তারা আরও বলেন, বাংলা অত্যন্ত সমৃদ্ধ একটি ভাষা। আমাদের ভাষাকে বিশ্ব দরবারে পৌঁছে দিতে ভাষার ইতিহাস ঐতিহ্য জানতে হবে। কেননা পৃথিবীতে একটি জাতি আছে যারা ভাষার জন্য রক্ত দিয়েছে। এই ভাষা অনন্য একটি ভাষা,রক্তের দামে কেনা। তাই আগামি প্রজন্মকে বাংলা ভাষার সঠিক ইতিহাস জানতে হবে তাহলেই বায়ান্ন ও একাত্তরের চেতনায় শাণিত হতে পারবে। কোন অপসংস্কৃতি যেন আমাদের ভাষা- মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে গ্রাস করতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। তাহলেই সালাম জব্বার রফিক সফিকের রক্ত বৃথা যাবে না।’

সার্বিক সহযোগীতা মেহেদী হাসান দেলোয়ার করেন এবং জাহাঙ্গীর আলম এর সঞ্চালনায় বক্তব্য ভাষা দিবসের উপর আলোচনা করেন, জনাব সাব্বির আহম্মেদ, জনাব জিল্লুর রহমান
জনাব তাহমিনা আক্তার, সুরমা আক্তার
,ময়না আক্তার, ঝিনুক আক্তার, হেপি আক্তার, রোকেয়া আক্তার প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর

জনপ্রিয় সংবাদ
সর্বশেষ সংবাদ